রাজশাহী,,

গাছ কাটা সারা, টেন্ডার ‘প্রক্রিয়াধীন’

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজশাহী মহানগরীর শ্রীরামপুর এলাকায় পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের অফিসার্স কলোনি। এটি আগে র‌্যাব-৫ এর কার্যালয় হিসেবে ব্যবহৃত হতো। বেশ কয়েকমাস আগে র‌্যাব কলোনিটি ছেড়ে তাদের নতুন ভবনে চলে গেছে। এরপর থেকেই কলোনির ভেতরে থাকা বিভিন্ন কাছ কেটে সাবাড় করা হচ্ছে। অথচ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ বলছে, গাছগুলো বিক্রি করতে টেন্ডার প্রক্রিয়া চলছে।

কলোনিতে বিভিন্ন দায়িত্বে নিয়োজিত রেলওয়ের কর্মচারিরা জানান, র‌্যাব চলে যাওয়ার পর ভবনগুলোতে রেলওয়ের কর্মকর্তারা পরিবার নিয়ে উঠেছেন। এরপর থেকেই ভেতরে থাকা গাছগুলো কাটা শুরু হয়। অন্তত ৬ মাস ধরে এসব গাছ কাটা হয়েছে। তবে কিছু দিন থেকে গাছ কাটা বন্ধ রয়েছে। কিন্তু কার নির্দেশে কে গাছগুলো কেটে নিয়ে গেছেন তা তারা জানেন না বলে দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অফিসার্স কলোনির ভেতরের গাছগুলোর তত্ত্বাবধায়ক পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী নাজিব কায়সার মুঠোফোনে দাবি করেন, তিন-চারটা গাছ কাটা হয়েছে। যে কয়টা গাছ কাটা হয়েছে সেগুলো কলোনির বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়নি। সব গাছ ভেতরেই আছে। গাছ কাটা হবে, এ জন্য দরপত্র আহ্বানের প্রক্রিয়া চলছে।

অফিসার্স কলোনি এলাকাটি সংরক্ষিত। অনুমতি ছাড়া কেউ ভেতরে ঢুকতে পারেন না। অনুমতি মিললে শুক্রবার দুপুরে বিশাল এলাকার ওই কলোনি ঘুরে দেখা গেছে, সেখানকার অন্তত ৭৩টি গাছ কেটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৫৫টি গাছ কাটা হয়েছে সাম্প্রতিক সময়ে। আর ১৮টি গাছ কাটা হয়েছে আরও কিছুদিন আগে। এছাড়াও কয়েকটি পেয়ারা গাছ কেটে নেওয়ার পর মাটিতে শুধু গাছের গোড়া দেখা গেছে। সেগুলো গণনা করা হয়নি।

সরেজমিনে দেখা গেল, পুরো কলোনিতে শুধু গাছ কাটার চিহ্ন। গাছগুলো কেটে শেকড়গুলো মাটি দিয়ে ঢেকে দেয়ারও চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে গাছ কাটায় এর চিহ্ন এখনও স্পষ্ট। আবার অন্তত ২০টি গাছ শুধু গোড়া থেকে করাত দিয়ে কেটে নেওয়া হয়েছে। এগুলো মাটি দিয়ে ঢাকা হয়নি। এ ধরনের আরও ছয়টি মোটা মোটা গাছের গোড়ায় আগুন দিয়ে সেগুলো পুড়িয়ে ফেলার চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু সেগুলো পুরোপুরি পোড়েনি। ছাইও পড়ে আছে গাছের গোড়ায়।

কলোনিতে ঢোকার আগে গাছ কাটার বিষয়ে জানতে চাইলে রেলওয়ের কর্মকর্তা নাজিব কায়সার দাবি করেছিলেন, কাটা গাছগুলো সব কলোনির ভেতরেই আছে। কিন্তু সরেজমিনে দেখা যায়, কলোনির দুই জায়গায় পড়ে আছে বিভিন্ন গাছের চিকন চিকন কিছু ডালপালা, কিছু আমগাছের পাতা এবং একটি করে সজনে, শিমুল ও কাঁঠালের গাছ। এর বাইরে সেখানে অন্য কোনো গাছ দেখতে পাওয়া যায়নি। আর যেগুলো কেটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে সেগুলোর বেশিরভাগই মেহগনি ও আম গাছ। এছাড়া মাত্র কয়েকটি রয়েছে পেয়ারা এবং নারকেল গাছ।

কলোনির ভেতরে পাওয়া যায় পানির পাম্প চালক জসিম উদ্দিনকে। তিনি বলেন, গাছ কারা কেটেছে আমি ঠিক নির্দিষ্ট করে বলতে পারবো না। কার অনুমতি নিয়ে কেটেছে তাও জানছি না। তবে হয়তো রেলের কোনো কর্তৃপক্ষ তাদের অনুমতি দিয়েছে, তাই তারা কেটেছে। এ ধরনের হতে পারে। পাঁচ-ছয় মাস আগে প্রথম গাছ কাটা শুরু হয়। আমরা কারও পরিচয় জানতে চাইনি।

রেলওয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, কলোনিটি র‌্যাব ছেড়ে দিলে সেখানকার ভেতরের ভবনগুলো সংস্কার করা হয়েছে। ভবনগুলোতে এখন পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) খায়রুল আলম, প্রধান প্রকৌশলী রমজান আলী ও অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সুবক্ত গিনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা পরিবার নিয়ে থাকেন। তারা কলোনিতে যাওয়ার পরই শুরু হয় তাজা গাছগুলো কেটে নিয়ে যাওয়ার মহোৎসব। অন্তত কোটি টাকার গাছ সাবাড় হয়ে গেছে বলে দাবি করে সূত্রটি।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে শুক্রবার বিকালে কলোনির গাছের তত্ত্বাবধায়ক রেলওয়ের সহকারী নির্বাহী প্রকৌশলী নাজিব কায়সারকে আবার কয়েকদফা ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি। বার বার ফোন দেওয়া হলেও ধরেননি পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের জিএম খায়রুল আলম এবং প্রধান প্রকৌশলী রমজান আলী। তাই এ ব্যাপারে তাদের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

বিভাগীয় সামাজিক বন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা এসএম সাজ্জাদ হোসেন বলেন, যে কোনো সরকারি ভূমি থেকে গাছ কাটতে হলে বন বিভাগের অনুমতি প্রয়োজন। সাম্প্রতিক সময়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এমন অনুমতি নিয়েছে বলে আমার মনে পড়ছে না। আর উন্নয়নমূলক কোনো কর্মকাণ্ড না থাকলে আমরা কাউকে তাজা-জীবিত গাছ কাটার অনুমতি দেই না।

Share

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ আপডেট



সর্বাধিক পঠিত



প্রকাশক ও সম্পাদক: ড. আবু ইউসুফ সেলিম
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: নুরে ইসলাম মিলন
বার্তা সম্পাদক : ফাহমিদা আফরীণ
প্রধান প্রতিবেদক: এস.এম.আব্দুল কাজিম

মিয়াপাড়া কেজি স্কুলের উত্তরে, রাজশাহী।
ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোবাইল ০১৭১২-৭৮৭৯৮৫
বার্তা কক্ষ:- অফিস ০৭২১-৭৭২৬০৬
মোবাইল:- ০১৭১৯-৯৩২৮৯৯
Email : upochar.news@gmail.com
www.dailyupochar.com
https://www.facebook.com/pg/DailyUpochar

Design & Developed BY